Thursday, April 30th, 2020

Astro Research Centre

৭ম স্থানে মঙ্গল উগ্র মাঙ্গলিক যোগের সৃষ্টি করে

৭ম স্থানে মঙ্গল উগ্র মাঙ্গলিক যোগের সৃষ্টি করে

৭ম স্থানে মঙ্গল মাঙ্গলিক যোগের সৃষ্টি করে

রবির মত মঙ্গলও অত্যন্ত শুষ্ক ও উষ্ণ একটি গ্রহ। এটি অগ্নিকে সূচিত করে। এটি আপনাকে মানসিক ও শারীরিক উভয় শক্তিই প্রদান করে। রাশিচক্রে এটি পুরুষত্ব, শক্তি ও আক্রমণাত্মক চরিত্র বিশিষ্ট একটি গ্রহ। এছাড়াও মঙ্গল গ্রহ ইঞ্জিনিয়ার, রিয়েল এস্টেট, সেনাবাহিনী, ঠিকাদার, শল্যচিকিৎসা প্রভৃতি পেশার মানুষকেও ইঙ্গিত করে।

মঙ্গল আপনার মধ্যে যুক্তিবোধ সৃষ্টি করে। আপনি সর্বদা যুক্তিসঙ্গত দৃষ্টিকোণ দিয়ে আলোচনা করতে সক্ষম হবেন। এটি আপনাকে প্রশাসনিক দক্ষতা, দৃঢ়তা, সাহস ও উচ্চাকাঙ্ক্ষা প্রদান করবে। কোনো কোনো সময় এটি যোগকারক হওয়ার ফলে আপনার ধন ও সমৃদ্ধি প্রাপ্তি ঘটবে।

৭ম স্থান আমাদের জীবনে বিবাহ, ব্যবসা, অংশীদারি, জীবনসঙ্গী, বিদেশযাত্রা, পেশা প্রভৃতিকে সূচিত করে। ৭ম ভাবে অবস্থিত গ্রহ সাধারণত আমাদের ইচ্ছা ও আশা-আকাঙ্খার ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ৭ম ভাবে অবস্থিত যেকোনো গ্রহ লগ্নে সরাসরি দৃষ্টি প্রদান করে কোষ্ঠীর ভিতকে পোক্ত করতে সাহায্য করে।

যেহেতু মঙ্গল শক্তি ও সাহসের সূচক, ৭ম স্তানে অধিষ্ঠান করে এটি আপনার মধ্যে প্রচুর ক্ষমতা ও আক্রমণাত্মক মনভাবের সৃষ্টি করবে। ৭ম স্থানে মঙ্গলের উপস্থিতির কারণে আপনি সর্বদা সব বিষয়ে নিজের কর্তৃত্ব প্রকাশে সচেষ্ট থাকবেন। মঙ্গল এমন একটি গ্রহ, যার সম্বন্ধে আগে থেকে নিশ্চিত করে কিছু বলা যায় না। এই গ্রহ আপনাকে জীবনে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হবার সাহস জোগাবে। আপনি সকল্প্রকার বিরুদ্ধ শক্তির সঙ্গে লড়াই করতে সক্ষম হবেন। যদি মঙ্গল উচ্চস্থ থাকে, তবে তা আপনার মধ্যে প্রচুর আত্মবিশ্বাসের সৃষ্টি করবে। যদি অন্য কোনো অশুভ যোগ না থাকে, তাহলে আপনি একজন সৎ ও রক্ষণশীল মানুষ হিসাবে পরিচিত হবেন। আপনি রিয়েল এস্টেট, ভূমি, কারিগরি প্রভৃতি ক্ষেত্রে প্রভূত উন্নতি করবেন।

৭ম স্থানে মঙ্গলের অবস্থান মাঙ্গলিক যোগের সৃষ্টি করে। মঙ্গল বিবাহে বাধা ও দীর্ঘতা সৃষ্টি করে। ভুল বোঝাবুঝির কারণে আপনার বিবাহিত জীবন নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এর পিছনে নানা কারণের মধ্যে অহংকারবোধ কেই অন্যতম প্রধান হিসেবে ধরা হয়।

নীচস্থ বা পীড়িত মঙ্গল আপনার ব্যবসায়ী অংশীদার দের সঙ্গে সম্পর্কে সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। যদিও আপনার অবিশ্রান্ত কঠোর পরিশ্রম আপনাকে মার্কেটিং, সেলসম্যানশিপ প্রভৃতি ক্ষেত্রে ভাল ফল দেবে।

বিবাহের স্থানে মঙ্গলের প্রভাবকে শুভ বলে গণ্য করা হয় না। এটি বিবাহিত জীবনে হতাশা এনে দিতে পারে। আপনি হয়তো অহঙ্কারবোধের কারণে সবসময় বোঝাপড়ায় রাজি নাও হতে পারেন।

৭ম স্থানে মঙ্গলের অবস্থান পুরুষের চাইতে মহিলাদের ক্ষেত্রে বেশি ক্ষতিকর বলে গণ্য করা হয়। অদম্য অহঙ্কারবোধের কারণে তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির সঙ্গে মাঝেমধ্যেই ঝামেলার আশঙ্কা থাকে। সুতরাং ৭ম স্থানে মঙ্গলের অবস্থান বিশেষত মহিলাদের পক্ষে একেবারেই শুভ নয়।

তবে উচ্চস্থ মঙ্গলের কারণে তিনি একজন উচ্চপদস্থ সরকারি কর্তাকে স্বামী হিসেবে লাভ করতে পারেন। এর সাথে যদি ১ম স্থানে উচ্চস্থ বৃহস্পতি অবস্থান করে, তাহলে সেই সংযোগের ফলে বিবাহের পরে সেই মহিলার সামাজিক মর্যাদার উন্নতি ঘটে।

জন্ম-লগ্নের ১ম, ৪র্থ, ৭ম ও ১০ম স্থানকে 'কেন্দ্র' বলে। যেমন মেষ লগ্নের নক্ষত্রে ১ম স্থানে মেষ, ৪র্থ স্থান কর্কট, ৭ম স্থানে তুলা এবং ১০ম স্থানে মকর রয়েছে। সুতরাং ১ম স্থানে, কর্কটের স্থানে, তুলার স্থানে এবং মকরের স্থানে কোন গ্রহ থাকলে তা কেন্দ্রে আছে ধরা হয়। ৯ম ও ৫ম স্থানকে কোণ বলে এবং ৬ষ্ঠ, ৮ম ও ৯ম স্থানকে দুঃস্থান বলে। গ্রহগণ জন্ম-লগ্নের কেন্দ্র ও কোণে বলশালী হয় এবং শুভ ফল প্রদান করে কিন্তু দুঃস্থানে অশুভ ফল প্রদান করে। জন্ম-রাশি বা জন্ম-লগ্নকে ১ম স্থান ধরে অবশিষ্ট রাশিগুলোকে ২য়, ৩য়, ৪র্থ এই ক্রমে গণনা করে শেষ পর্যমত্ম যে ১২টি স্থান পাওয়া যায় ঐ ১২টি স্থান দ্বারা ১২ প্রকার ভাব ফল নির্ণয় করা হয়। ১ম অর্থাৎ জন্ম-লগ্ন ও জন্ম-রাশি থেকে দেহভাব, ৩য় স্থান থেকে ভ্রাতৃভাব, ৪র্থ স্থান থেকে বন্ধুভাব, ৫ম স্থান থেকে পুত্রভাব, ৬ষ্ঠ স্থান থেকে শত্রুভাব, ৭ম স্থান থেকে পতি বা পত্নীভাব, ৮ম স্থান থেকে আয়ু বা নিধনভাব, ৯ম স্থান থেকে ভাগ্য বা ধর্মভাব, ১০ম স্থান থেকে কর্মভাব, ১১শ স্থান থেকে আয়ভাব এবং ১২শ স্থান থেকে ব্যয়ভাব বিচার করা হয়। যেমন- মেষ রাশি বা মেষ লগ্নের ৭ম স্থানে তুলা রাশি অবস্থিত। ৭ম স্থান দ্বারা পতি বা পত্নীযোগ, বিবাহ ও দাম্পত্য-জীবন বিচার করা হয়। এখন মেষ রাশির ৭ম স্থানে অর্থাৎ তুলা রাশিতে যদি শুভ, উচ্চস্থ ও মিত্র গ্রহ অবস্থান করে এবং শুভ গ্রহের দৃষ্টি থাকে তবে ঐ জাতকের পতি বা পত্নী, বিবাহ ও দাম্পত্য-জীবন সুন্দর হবে। এর বিপরীত হলে বিপরীত ফল প্রসব করবে। এভাবে দ্বাদশ স্থানে গ্রহ-নক্ষত্রে অবস্থান অনুসারে দ্বাদশ প্রকার ভাব বিচার করা হয়। দ্বাদশ স্থানের অধিপতি গ্রহের অবস্থান অনুসারেও দ্বাদশ ভাব নির্ণয় করা হয়। যেমন- মেষ রাশির অধিপতি মঙ্গল তাই মঙ্গল হবে লগ্নপতি। মেষ রাশির ২য় স্থানে বৃষ রাশি রয়েছে। বৃষ রাশির অধিপতি শুক্র তাই শুক্র হবে তনুপতি। এই শুক্রের শুভ বা অশুভ দ্বারা তনু বা দেহভাবের শুভাশুভ বিচার করা হয়।

জ্যোতিষে কয়েকটি প্রয়োজনীয় সূত্র : (আপনাদের জন্মকুণ্ডলী মিলিয়ে দেখে নিন)

১. অষ্টমে রবি+রাহু - বদনাম যোগ।

২. দ্বিতীয় বা দ্বা্দশে ( শনি+কেতু) থাকলে ঋন হবেই।

৩.শুক্র খারাপ থাকলে অভিনেতা বা অভিনেত্রি হওয়ার স্বপ্ন না দেখাই ভাল।

৪.রবি + শুক্র জন্মছকে এক সঙ্গে থাকলে জীবনে কোন না কোন সময় দারিদ্র আসবেই।

৫. রবি+কেতু, রবি+রাহু, রবি+শনি, মঙ্গল+শুক্র, শুক্র+কেতু, শুক্র+রাহু, বৃৃহস্পতি+রাহু, বৃৃহস্পতি+কেতু, বুধ+কেতু, বুধ+রাহু, শনি+মঙ্গল+শুক্র+রাহু, রবি+বুধ+কেতু, শনি+মঙ্গল+রাহু, এই অশুভ যোগ গুলির সার্থক প্রতিকার না করলে জীবনে একটির পর একটি সমস্যা লেগেই থাকবে।

৬. জন্মছকে সব গ্রহগুলি নীচস্থ হলে অধিক মন্দ হেতু রাজ যোগের সৃষ্টি হয়, এই যোগে নিজস্ব ফ্যক্টট্রি হয়।

৭. জন্মছকে সব গ্রহগুলি উচ্চস্থ হলে সন্ন্যাস হয়।

৮. জন্মছকে কোন কিছু হওয়ার connection না থাকলে, প্রতিকারের মাধ্যমে সেই যোগ এনে দেওয়া যায় না। বিবাহ, চাকরি, প্রেম ইত্যাদি সব জন্মের সময় নিজের ভাগ্যে নিয়েই জন্মায়। গ্রহের অশুভ যোগ, অশুভ অবস্থানে যখন সময় খারাপ চলে তার থেকে মুক্তি পেতেই প্রতিকার প্রয়োজন হয়।

৯.জ্যোতিষের সব থেকে বড় বিভাগ হল সার্থক প্রতিকার নির্বাচন করা।

১০. রাহু+মঙ্গল জাতক/জাতিকার এনর্জি নষ্ট করে। সুগার হয়।

১১. রবি+রাহু জাতক জাতিকাকে আত্মবিশ্বাসের অভাব আনে। চোখ এর রোগ হয়।

১২. ৭ম ভাবে কেতু+মঙ্গল যোগ - বিবাহিত জীবনকে নষ্ট করবেই।

১৩. দ্বিতীয়ে শনি+কেতু - দাঁত নিয়ে ভোগান্তি

১৪. ষষ্ঠে কেতু + শুক্র - যৌন অক্ষমতা। বিকৃত রুচি।

(প্রয়োজনে অবশ্যই যোগাযোগ করুন )

হরে কৃষ্ণ মহামন্ত্র‬ রোজ পাঠ করুন রত্ন ধরনের প্রয়োজন নাই

আপনি কি জানতে চান আপনার ভাগ্যের অনুকূল ও প্রতিকূল পরিস্থিতি গুলি কি কি?? এবং অনলাইন poriseva পরিষেবা পেতে চান

তাহলে এখুনি আপনার জন্ম তারিখ , জন্ম সময় , জন্ম স্থান এই website www.arcsm.in গিয়ে ১০০০টাকা দিয়ে registration করুন আপনা কে সমস্ত বিষয় সম্পর্কে জানানো হবে ..ও কুন্ডলী (pdf )ও প্রতিকার লিখে প ঠানো হবে।
অনলাইন ছাড় 500টাকা
সাধারণ ক্ষেত্রে 1500

সকল শাস্ত্রের মূল কথা হল কেবল ভক্তিভরে হরে কৃষ্ণ মহামন্ত্র কীর্ত্তণ করা ৷

হরে কৃষ্ণ হরে কৃষ্ণ কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে হরে,
হরে রাম হরে রাম রাম রাম হরে হরে ৷ গ্রহ রত্নের প্রয়োজন নাই

জয় শ্রী কৃষ্ণ জয় মা তারা জয় মা সন্তোষী ঈশ্বর এক অনন্ত
ভিডিও টা দেখুন ভালো লাগলে সাবস্ক্রাইব ও শেয়ার করুন

https://youtu.be/0FC2NeuQb1I

Astro Research Centre
Lob Mukherjee Govt.Enrolled &Enlisted Astrologer Founder of Astro Research Centre ph 8906959633 /9593165251 Email --lobmukherjeejsmarc@gmail .com Add--Rampurhat .Harisava para.Birbhum. please like and share my page --Astro Research Centre contact www.arcsm.in
My website- arcsm.in
Please visit here
For Registration check in here.
All kind of Gems Stone are Testing here
All Kind of Certified Gems and Stone available here

পাইকারী ও খুচরা মূল্যে সকল প্রকার রত্ন পাওয়া যায়
রত্ন ব্যবসায়ীরা ও জ্যোতিষ বন্ধুরা যোগাযোগ করুন

Axis Bank

A/C No 917010026448091
Branch - Rampurhat
Branch Code --1131
IFSC Code -UTIB0001131

এছাড়া Google pay BHIM এবং phone pe তে টাকা পাঠাতে পারেন

বিঃ দ্রঃ স্হায়ী সদস্যপদ Membership rs 2400 সমস্ত প্রকার রত্নের উপর 20%ছাড় দেওয়া হবে

আমার নতুন youtube channel

https://www.youtube.com/channel/UCFgC3ww0Soj5GOrXjKuFJtw



Blog Url:
https://arcsm.in/blog.php?blog=20200430123047